গোপন সম্পর্ক

ছেলে :-শুনাে,

মেয়ে:-কি?

ছেলে :- তােমাকে একবার ছুয়ে দেখতে চাই, তুমি কি

আমার হবি একবার।

মেয়ে:- ঠিক বুঝিনি কথাটা

ছেলে :-অনুমতি দিলে আমি তােমার মনটাকে একবার

ছুয়ে দেখতে চাই,তারপর আস্তে আস্তে তুমার সমস্ত

শিরা উপশিরা মিশে যেতে চাই,তুমাকে ভালােবাসতে

চাই। 

মেয়ে :- ধূর, বাল, এত ভনিতা করছিস কেন, শালা

সরাসরি বললে তাে পারতিস যে আমাকে চাস,

তাের মা বােন কে গিয়ে মারা না, আমাকে বলছিস

কেন, বাইরে তুফান বলে, আচমকা এসেছিস বলে এই

বিপদের রাতে থাকতে দিয়েছি, কাল সকাল দশটা

আমার স্বামী আসবে তুমি ওর আসার আগেই চলে

যেও প্লিজ কিচেনের পাশের রুমে তােমার শােবার

ঘর, ডিনার করছাে এবার আসতে পারাে।

ছেলে :-রাগ করছাে কেনাে, আমি তাে সেই ছােট্ট বেলা

থেকেই তােমাকে খুব ভালােবাসি, ভয়ে বলিনি, বিয়ে

করে সংসার করতে পারি নি, আজ আমি বড়াে একা

নীলম, আমি চাই তােমাকে নিয়ে কিছু মুহূর্ত সাজিয়ে

গুছিয়ে রাখতে, যাতে জীবন এর বাকি সময়গুলাে

কাটানাে সহজ হয়, কেউ জানবে না কিছু, আজকের

এই মহুর্তে নষ্ট করে দিতে পারছি না, আমার সাথে

এসাে নিজের হাতে পেগ বানিয়ে খাওয়াবাে না করাে

না।

মেয়ে:- মদ খায়, কিরকম একটা অনুভূতি হয়, মাথা

খারাপ হয়ে যায়। নিজের নাইটি টা খুলে দেয়,

লােকটাকে হাতে ধরে টেনে নিয়ে যায় বাথরুমে,

শাওয়ার চালিয়ে দুজন ভেজে,

ছেলে:- নীলিমার, পা থেকে মাথা পর্যন্ত চুমু খেতে

খেতে হাত বুলিয়ে দিতে থাকে। প্রায় দুঘন্টা বাথরুমে

চলে তুমুল যুদ্ধ, কেউ ই হারবার নয়, জলের দ্রুততার

সঙ্গে সঙ্গে দুজনের মিলনের দ্রুততা বেড়ে যায়৷

নীলিমা বেশী কিছু মনে নেই, শরীরে কয়েকটা নখের

দাগ ছাড়া, মেঘলা আকাশ পরিষ্কার, পাখি ডাকছে

সকাল হয়ে গেছে বিছানায় উলঙ্গ নিজেকে পায়,

একটা চিঠি টেবিলের উপর, খুলে পড়ে,

নীলু, রাতটা সহজে ভােলার মতােন না, তুমি চাইলে

এরকম হাজারাে রাত তুমি আমি একাকার হতে পারি,

দুঃখ কষ্ট পেলে ছরি, হয়তাে আমাকে কোনদিন

তােমার মনে পড়বে না তবুও আবার দেখা হবে আশা

রাখছি.......

নীলিমার ফোন বেজে উঠে, হাসবেণ্ড ফোন করেছে, ও

জানালাে আজকে দশটায় আসছি না কাল বিকেল

সাতটার আসব,

নীলিমা মুখ শান্ত মন প্রফুল্ল

ফ্রেশ হয়ে , সােফায় বসে ফোন করে

বলছিলাম একবার আসবে তুমি, আসলে আমি ও

সঙ্গে সঙ্গে দুজনের মিলনের দ্রুততা বেড়ে যায়৷

নীলিমা বেশী কিছু মনে নেই, শরীরে কয়েকটা নখের

দাগ ছাড়া, মেঘলা আকাশ পরিষ্কার, পাখি ডাকছে

সকাল হয়ে গেছে বিছানায় উলঙ্গ নিজেকে পায়,

একটা চিঠি টেবিলের উপর, খুলে পড়ে,

নীলু, রাতটা সহজে ভােলার মতােন না, তুমি চাইলে

এরকম হাজারাে রাত তুমি আমি একাকার হতে পারি,

দুঃখ কষ্ট পেলে ছরি, হয়তাে আমাকে কোনদিন

তােমার মনে পড়বে না তবুও আবার দেখা হবে আশা

রাখছি........

নীলিমার ফোন বেজে উঠে, হাসবেণ্ড ফোন করেছে, ও

জানালাে আজকে দশটায় আসছি কাল বিকেল

সাতটার আসব,

নীলিমা মুখ শান্ত মন প্রফুল্ল

ফ্রেশ হয়ে , সােফায় বসে ফোন করে

বলছিলাম একবার আসবে তুমি, আসলে আমি ও

তােমাকে পেগ বানিয়ে খাওয়াতে চাই.....

আজ রাত ৪ টায় দেখা হচ্ছে। বাই৷৷৷৷

তারপর কি হয়েছে সেটা সবাই জানি,

যারা বুঝােনি তাদের বলছি ওই রাতে কি হল তা তােমরা মনে কর

ইতিহাস III

 

(1) Comments
  • Khub valo kahini ta pode anondo holo. Golpo ta

Write a comment